ইসলামের ইতিহাস

হু হু করে বাড়ছে যুক্তরাষ্ট্রে মসজিদ ও মুসলিমের সংখ্যা!

২০০০ সালে যুক্তরাষ্ট্রে বসবাসরত মুসলমানের সংখ্যা ছিল ১০ লাখ, ২০১০ সালে দেশটিতে মুসলমানের সংখ্যা বেড়ে ২৬ লাখে দাঁড়িয়েছে। অর্থাৎ দশ বছরে দেশটিতে মুসলমানের সংখ্যা ৬৬ দশমিক ৭ শতাংশ বেড়েছে।
.
২০০০ সালে আমেরিকায় মসজিদ ও ইসলামিক সেন্টারের সংখ্যা ছিল ১২০৯টি। আর বর্তমানে সে সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ২১০৬-এ। এমনকি মন্টানা যেখানে খৃস্টান সম্প্রদায়ের বাইরের জনসংখ্যা শতকরা এক ভাগেরও কম, সেখানেও দু’টি মসজিদ রয়েছে। বর্তমানে যুক্তরাষ্ট্রের নিউইয়র্কে ২৫৭টি, ক্যালিফোর্নিয়ায় ২৪৬টি এবং টেক্সাসে ১৬৬টি মসজিদের নির্মাণ কাজ চলছে। আমেরিকার বড় বড় শহরগুলোতে নির্মিত হচ্ছে সুরম্য মসজিদ। ২০০০ সালে যুক্তরাষ্ট্রে বসবাসরত মুসলমানের সংখ্যা ছিল ১০ লাখ, ২০১০ সালে দেশটিতে মুসলমানের সংখ্যা বেড়ে ২৬ লাখে দাঁড়িয়েছে। অর্থাৎ দশ বছরে দেশটিতে মুসলমানের সংখ্যা ৬৬ দশমিক ৭ শতাংশ বেড়েছে।


.
বর্তমানে আমেরিকায় ২.৬ মিলিয়ন মুসলমান শুক্রবার মসজিদে যান। ৪০ ভাগ আমেরিকান মুসলমান নিয়মিত মসজিদে যান। শুধু পুরুষই নয় নারীরাও মসজিদে যান। প্রতিটি মসজিদেই নারীদের জন্য আলাদা নামাজের ব্যবস্থা রয়েছে। আমেরিকার মসজিদগুলোর ইমামরাও ধর্মীয় ও আধুনিক শিক্ষায় শিক্ষিত। যেকোনো ধর্মীয় সমস্যার সমাধান দিতে তারা সক্ষম। ইসলাম সম্পর্কে জানার আগ্রহ থেকে এখানকার মুসলমানরা দিন দিন মসজিদমুখী হচ্ছেন। বর্তমানে আমেরিকায় ইসলাম সবচেয়ে দ্রুতগতিসম্পন্ন ধর্ম। এছাড়া মুসলমানরাও আস্তে আস্তে নিজেদের ইতিবাচকভাবে উপস্থাপন করতে সক্ষম হচ্ছেন। ইসলাম ও মুসলমান সম্পর্কে যে ভুল বোঝাবুঝি রয়েছে তা নিরসনের চেষ্টা করছেন। এ ক্ষেত্রে তরুণরা ইন্টারনেটকে হাতিয়ার হিসেবে ব্যবহার করছেন।
.
আমেরিকায় বসবাসরত মুসলমানের মধ্যে বিরাটসংখ্যক তরুণ নিয়মিত মসজিদে যায়। এসব তরুণ সম্পর্কে কোনো কোনো গণমাধ্যম অপপ্রচার চালাচ্ছে-তারা মৌলবাদ ও চরমপন্থার দিকে ঝুঁকে পডছে। কিন্তু দেশটির শতকরা ৮৭ ভাগ মুসলিম নেতা ও ইমাম তাদের নিজেদের অভিজ্ঞতার আলোকে বলেছেন, মুসলিম তরুণদের মধ্যে চরমপন্থা বাড়ছে না। ইসলামে আল্লাহর ওপর নির্ভরতা, এক খোদার প্রতি আনুগত্য, যেকোনো কু-সংস্কার থেকে দূরে থাকা, মানবীয় মূল্যবোধ রক্ষার ওপর গুরুত্ব দেয়ায় এবং সর্বোপরি পবিত্র কুরআন শরিফে আজ পর্যন্ত কোনো বিকৃতি না ঘটায় যুক্তরাষ্ট্রসহ পশ্চিমা দেশগুলোতে ক্রমেই ইসলামের প্রতি মানুষের ঝোঁক বাড়ছে। তাই বলা যায়, সারা বিশ্বই একদিন ইসলামের আদর্শের ছায়াতলে আশ্রয় নেবে-এমনটাই প্রত্যাশা প্রতিটি মুমিনের।
.
‪#‎দেশে_দেশে_ইসলাম‬
‪#‎দেশে_দেশে_ইসলাম_ও_মুসলিম‬

মতামত দিন

Solve : *
5 + 24 =


2 কমেন্ট