জিহাদ ও জঙ্গীবাদ প্রেক্ষিত বাংলাদেশ

বর্তমান বিশ্বের সবচেয়ে আলোচিত ও স্পর্শকাতর বিষয় হল সন্ত্রাস। বিশেষ করে বাংলাদেশেও এই প্রসঙ্গ বর্তমানে হট কেক হিসেবে আলোচিত হচ্ছে। বর্তমানে সহীহ আক্বীদার ও আমলের অনুসারীদের এক প্রকার জুলুম করে অন্যায় অভিযোগ চাপিয়ে দিয়ে অন্যায় অত্যাচার করা হচ্ছে। চরমপন্থার অভিযোগ করে সহীহ আক্বীদার দাওয়াতী কার্যক্রমকে থামিয়ে দেয়অর চেষ্টা করছে। অথচ সহীহ আক্বীদা ও আমলের অনুসারীরা সকল প্রকার চরমপন্থার বিরোধী সেইসাথে একটি শান্তিপূর্ণ পরিবেশ বা দেশে অশান্ত পরিবেশ সৃষ্টি সহীহ আক্বীদা ও আমলের পরিচয় বহন করে না। চিরশান্তির ধর্মকে সন্ত্রাসী ধর্ম হিসেব আখ্যায়িত করার ষড়যন্ত্র হিসেবে এসব করানো হচ্ছে। এর আগেও বিভিন্ন দাওয়াতী এনজিওর কার্যক্রমকেও ভূয়া জঙ্গীবাদের ধূয়া তুলে বন্ধ করার চেষ্টা করা হয়েছে।

ধর্মের নামে এক শ্রেণীর অশিক্ষিত, অর্ধশিক্ষিত, মূর্খ লোকেরা মুসলিমদের চিরশত্রুদের পাতানো ফাঁদে পা দিয়ে একদিকে যেমন আমাদের দেশকে বিতর্কিত করার অপপ্রয়াস চলছে, সেই সাথে আমাদের চিরশান্তির ধর্ম ইসলামকেও কলঙ্কিত করার চেষ্টা করছে। একথা সর্বজনবিদিত যে, ইসলাম কোন অবস্থাতেই জঙ্গীবাদকে সমর্থন করে না।

কিন্তু দু:খের বিষয় আমাদের সমাজে জিহাদ ও জঙ্গীবাদকে আলাদা না করতে পারায় আমাদরে মাঝে বিভ্রান্তি বিরাজ করে। অনেকেই মুসলিমদের সঠিক দাবী নিয়ে কর্মপ্রচেষ্টাকেও জঙ্গীবাদ বলে ভুল করে বা জেনে বুঝে অপপ্রচার করে। যেমন ফিলিস্তিনের উপর স্টীমরোলার চালানো ইসরাঈলের বিপক্ষে লড়াইরত মুসলিম ভাইদেরকেও আমাদের তথাকথিত ধর্মনিরপেক্ষ মিডিয়া জংগী বলে প্রচার করছে। অথচ ইসরাঈলের রাস্ট্রীয় সন্ত্রাস তাদের কাছে কিছুই না। ভিনদেশী বিধর্মী নোয়াম চমস্কিও এ বিষয়ে প্রতিবাদ করছে। তেমনিভাবে ভারতীয় সেনাবাহিনীর অত্যাচারে পিষ্ট কাশ্মীরের মুজাহিদদের সম্পর্কেও আমাদের মিডিয়া অপপ্রচারে লিপ্ত অথবা বিভ্রান্ত।

বিশ্বের এরকম অনেক দেশেই মুসলিমরা নির্যাতিত ও নিষ্পেষিত। সেই সাথে আমাদের মুসলিম দেশের শাসকগণও ঐক্যবদ্ধ নয়। আল্লাহ আমাদের সকলকে এইসব ষড়যন্ত্রকে প্রতিহত করে সেইসব কাফির মুশরিকদের প্রতিহত করার তাওফিক দিন। আমীন।

বর্তমান সমাজে প্রচলিত অভিযোগগুলোর প্রামাণ্য অভিযোগ সম্পর্কে ড. কাবীরুল ইসলাম রচিত “ জিহাদ ও জঙ্গীবাদ প্রেক্ষিত বাংলাদেশ” বইটি আমাদের অনেক সংশয় দূর করবে। এ ব্যাপারে আমাদের করণীয় ও বর্জনীয় সম্পর্কে সম্যক ধারণা পাওয়া যাবে ইনশাআল্লাহ। বইটি প্রকাশ করেছে শ্যামলবাংলা প্রকাশনী।

Jihad o Jongibad

বইটির উল্লেখযোগ্য আলোচ্য বিষয়:

  • জিহাদের সংজ্ঞা, পরিচয়, প্রকারভেদ, স্তর
  • জিহাদের উদ্দেশ্য ও শর্তাবলী
  • জিহাদের গুরুত্ব ও ফযীলত
  • অমুসলিমদের সাথে কখন যুদ্ধ বৈধ
  • সন্ত্রাসের পরিচয়
  • জিহাদ ও সন্ত্রাসের মধ্যে পার্থক্য
  • দেশে দেশে মুসলিমদের উপর নির্যাতন
  • সন্ত্রাসের কারণ ও সন্ত্রাস দমনে করণীয়
  • ইসলামের দৃষ্টিতে জঙ্গীবাদ ও সন্ত্রাসবাদ
  • ইসলামের মানুষ হত্যা হারাম
  • মুসলিম কখন হত্যাযোগ্য
  • আত্মীঘাতী হামলা ইসলামে অবৈধ
  • ইসলামের অমুসলিমের সাথে আচরণর বিধান
  • জঙ্গী ও সন্ত্রাসী কর্মকান্ডের পরিণতি
  • বাংলাদেশের প্রেক্ষাপটে জঙ্গীবাদ
  • বাংলাদেশের জরমপন্থী দলসমূহ
  • জঙ্গীবাদের সাথে কওমী মাদরাসার সম্পৃক্ততা
  • ইসলামের দৃষ্টিতে রাষ্ট্রপ্রধানের আনুগত্য
  • শাসকের গুরুত্ব সম্পর্কে সালফে সালেহীনের অভিমত
  • রাষ্ট্রপ্রধানের আনুগত্য সম্পর্কে বিদ্বানগণের অভিমত
  • শাসককে উপদেশ দেয়া
  • শাসকের অত্যাচারে ধৈর্যধারণ করা।
  • রাস্ট্রপ্রধানের বিরুদ্ধে বিদ্রোহ না করা।
  • মুসলিমকে কাফির আখ্যায়িত করা।
  • কাফির আখ্যাদান সম্পর্কে আল্লাহ ও রাসূল (সা)-এর সতর্কবাণী
  • কাফির আখ্যায়িত করার ক্ষেত্রে চরমপন্থীদের দলীল
  • কাফির আখ্যায়িত করতে পারে কে ?
  • আল্লাহর বিধান দ্বারা শাসন না করার ক্ষেত্রে প্রযোজ্য বিধান
  • কাফির আখ্যাদান প্রসঙ্গে ওলামায়ে কিরামের অভিমত প্রভৃতি।

এক নজরে বইটি :

জিহাদ ও জঙ্গীবাদ প্রেক্ষিত বাংলাদেশ

রচনায়: ড. মুহাম্মাদ কাবীরুল ইসলাম

প্রকাশনায়: শ্যামলবাংলা প্রকাশনী

সাইজ : ৫ মেগাবাইট

বইটির ডাউনলোড লিংক

From Mediafire

From Google Drive

About wj_admin

One comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

Solve : *
23 × 1 =