ইমাম আবু হানীফা (রহ) ও একদল নাস্তিক

ইমাম আবু হানীফা (রহ) ও একদল নাস্তিক

একবার একদল নাস্তিক ও তাদের নেতারা একজন বিখ্যাত মুসলিম নেতার (ইমাম আবু  হানিফা র:) সার্থে বিতর্ক অনুষ্ঠানের জন্য আহ্ববান জানালেন। যদিও ইমাম আবু হানিফা র: বিতর্ক করার ব্যাপারে খুব বেশি আগ্রহী ছিলেন না। তারপরও তিনি রাজি হলেন। বিতর্কের বিষয় এই পৃথিবীর সবকিছু কারো সাহায্য ছাড়াই এমনিতেই তৈরী হয়েছে? না কি হয়নি? ।
অনুষ্ঠানের দিন সবাই নিধারীত সময়ে উপস্থিত। শুধুমাত্র ইমাম আবু  হানিফা র: নেতা বাদে। সকলেই অপেক্ষা করছেন ইমাম আবু
হানিফা র: জন্য। কেননা তিনিই মুলত বিতর্কে অংশগ্রহন করবেন মুসলিমদের পক্ষ হতে। সকলেই অপেক্ষা করছেন অথচ তার কোন দেখা নাই। একদিকে নাস্তিকরা মনে মনে খুশি হতে লাগল। অন্যদিকে মুসলিমরা লজ্জা বোধ করছিল, তাদের নেতার অনুপস্থিত থাকাতে। অনেকেই ধরে নিলেন তিনি হয়ত আর আসবেন না পরাজয়ের ভয়ে।
একটি সময় সকলে সিদ্ধান্ত নিল যে অনুষ্ঠান শেষ করে দিতে হবে। ঠিক তখনই তিনি উপস্থিত হলেন। মঞ্চে উঠার পর সকলেই তার নিকট জিজ্ঞাসা করল কি কারনে আপনার আসতে এত দেরি হলো। তিনি একটু চুপ থেকে বললেন আজ এক অবাক করার মত ঘটনা ঘটেছে যাহা সত্যিই অবিশ্বাস্য। আর এ‌ই কারনে আমার আসতে দেরি হয়ে গেল।


সকলেই ঘটনা সম্পর্কে জানতে চাইলো। তিনি বললেন আমার ধারনা, তোমরা এই ঘটনা শোনার পর আমার কথা বিশ্বাস করবে না অথবা আমাকে পাগল বলবে। এজন্য আমি এই ঘটনা এই সমাবেশে বলতে চাই না। নাস্তিকদের দলনেতা বললেন। আপনার মত একজন বিজ্ঞ ব্যাক্তি কখনও এমন কোন কথা বলবে না, যাহার কোন গ্রহন যোগ্যতা নেই। নাস্তিক নেতা তাকে অনুরোধ করলেন ঘটনাটি সকলের সামনে বলতে। তার অনুরোধে মুসলিম পন্ডিত ইমাম আবু হানিফা র: বলতে শুরু করলেন।

আজ বাড়ি হতে বের হয়ে যখন নদীর ঘাটে পৌছেছি, তখন দেখি নদীতে কোন নৌকা নেই। আশেপাশেও কোন লোকজনও নেই। আমি দীর্ঘক্ষন অপেক্ষা করছি নৌকার জন্য। হঠৎাট বিকট আওয়াজ করে একটি গাছ নদীতে পড়ে গেল। তারপর গাছটি ছোট ছোট টুকরো হতে শুরু করল। আমি একটু অবাক হয়ে গেলাম। এরপর টুকেরো গুলো একটি আরেকটির সাথে যুক্ত হতে লাগল। কিছুক্ষনের ভিতর এটি একটি নৌকাতে পরিনত হলো। অতপর নৌকাটি ‍ধিরে ধিরে আমার ঘাটের দিক এগিয়ে এলো। আমি কিছুটা ভয় পেয়ে গেলাম। যেহেতু ঘাটে নৌকা ছিল না তাই সাহস করে নৌকাটির উপর উঠে পড়লাম। নৌকাটি নিজে থেকে চলতে শুরু করল আর আমাকে নদী পার করে দিল। তারপর আমি হেটে চলে আসলাম। আর এসব ঘটনা ঘটছিল অনেক সময় ধরে। যার কারনে আমার আসতে দেরি হয়ে গেল।
নাস্তিকদের সকলেই হো হো করে হেসে উঠল। মুসলিমরা সবাই কানাকানি করতে লাগল। নাস্তিকদের দলনেতা বলেই ফেল্লেন আপনাকে কেউ কিছু খা‌ইয়ে(মদ বা নেশার জাতীয়) দিয়েছে কিনা? নাস্তিক নেতা বললেন এমনি এমনি এভাবে কোন কিছু হওয়া কি সম্ভব।? আপনিতো পাগলের মতো কথা বলছেন।

তখন ইমাম আবু হানিফা র: বললেন, আমি না হয় একা পাগল হয়েছি। কিন্তু আপনারা নাস্তিকরা সবাই একত্রে পাগল হলেন কিভাবে। আমি ত শুধু একটি গাছ হতে একটি নৌকা তৈরী হওয়ার কথা বললাম। আর আপনারা বলছেন এই মহাবিশ্বের চাঁদ, সূর্য, পৃথিবী, গাছপালা, পশুপাখি সবকিছু এমনিতেই সৃষ্টি হয়ে গেছে।
আর এভাবেই ইমাম আবু হানিফা র: বির্তকের ইতি টানলেন।

 

সূত্র

About wj_admin

One comment

  1. Md. Alamgir Hossan Mastar , M.A. LL.B

    ইমাম আবু হাবিফা (রঃ) এর অলৌকিক ঘটনা পোষ্ট করার জন্য ধন্যবাদ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

Solve : *
26 + 2 =