ইসলাম গ্রহণের গল্প

কিয়োচিরো সুগিমোটো – বাংলাদেশ থেকে অনুপ্রানিত এক নওমুসলিম যুবক

তিনি একজন জাপানিজ প্রাকটিসিং মুসলিম ও দাঈ, জাপানে ইসলাম প্রচারে সম্প্রতি অসামান্য অবদান রেখে চলেছেন, মাশাআল্লাহ!

তিনি তার জার্নি টু ইসলামের ঘটনা বর্ণনা করতে গিয়ে বলেন, আমি অরজিনালি একজন সেকি, জিফুর বাসিন্দা। এই শহরটি বিখ্যাত জাপানাজি সামুরাই সোর্ড (জাপানের তৈরি একটি বিশেষ বিখ্যাত ঐতিহ্যবাহী তলোয়ার) তৈরির জন্য, যা গত আটশত বছর ধরে চলমান! আমি এখন চিবাতে বসবাস করি যা জাপানের রাজধানী টোকিওর একটি রেসিডেনসিয়াল এলাকা!

১৯৯৬ এর দিকে আমি বাংলাদেশে যাই, আল্লাহ সুবহানাহু ওয়া তায়ালা আমাকে বাংলাদেশের গরিব মুসলিমদের দয়ার্দ্রতা ও হৃদয়গ্রাহী আন্তরিকতার মাধ্যমে ইসলামের দিকে ইম্প্রেস করেন, এরপর আমি ইসলামের শিক্ষা অনুযায়ী মুসলিমদের কর্মকাণ্ড থেকে একটি পজিটিভ ধারণা পাই।

এরপর আমি কিছুদিন জাপানিজ ভাষায় অনূদিত কোরআন অধ্যয়ন শুরু করি, এখান থেকে আমি ব্যাপক ইম্প্রেসড হই এবং স্রষ্টা অর্থাৎ আল্লাহ সুবহানাহু ওয়া তায়ালা ও পরকালের ব্যাপারে একটি ক্লিয়ার কনসেপ্ট পাই।

এরপর তিনি পবিত্র কোরআন থেকে সুরা কাসাসের ৮৮ নম্বর আয়াতটি রেফারেন্স আনেন, অর্থাৎ—

وَلَا تَدْعُ مَعَ اللَّهِ إِلٰهًا ءَاخَرَ ۘ لَآ إِلٰهَ إِلَّا هُوَ ۚ كُلُّ شَىْءٍ هَالِكٌ إِلَّا وَجْهَهُۥ ۚ لَهُ الْحُكْمُ وَإِلَيْهِ تُرْجَعُونَ

আল্লাহর সঙ্গে অন্য কোন ইলাহকে ডেকো না, তিনি ছাড়া সত্যিকারের কোন ইলাহ নেই, তাঁর (সত্তা) ছাড়া সকল কিছুই ধ্বংসশীল। বিধান তাঁরই, আর তাঁর কাছেই তোমাদেরকে ফিরিয়ে আনা হবে। (28:88)।

এরপর তিনি বলেন- আমরা স্রষ্টাকে বাতিল করি অথবা উপেক্ষা করি আল্টিমেটলি সবকিছু শেষ হয়ে যাবে এবং আমাদেরকে তার সামনে দাঁড়াতে হবে!

এটাই আমার জন্য একটু সমস্যা হয়ে দাঁড়ায়! কেননা কথাগুলো আমার অন্তরে একটি প্রতিক্রিয়ার সৃষ্টি করে! এরপর আলহামদুলিল্লাহ, আমি ১৯৯৭ এ ইসলাম গ্রহণ করি!

বর্তমানে তিনি আন্তর্জাতিক ইসলামী শিক্ষা ও গবেষণা সংস্থা iERA এর একজন গুরুত্বপূর্ণ সদস্য!

ভাবতেও অবাক লাগে, একজন জাপানিজ যখন ৯৬-তে আমাদের দেখে ইম্প্রেস হয়ে মুসলিম হয়েছেন, ইসলামের প্রচারক হয়েছেন!

১৮-তে এসে আমরা কি না ছুটে চলেছি পশ্চিমা সংস্কৃতির নোংরা ভেল্কির দিকে!

কোথায় ইসলাম কোথায় ইসলামি সংস্কৃতি?

সবকিছু বিসর্জন দিয়ে হিন্দুয়ানির নতুন ভার্সন আধুনিক বাঙ্গালিত্ব কিংবা ওরিয়েন্টালিস্ট হবার জন্য যখন আমরা আমাদের ইসলামি গৌরবোজ্জ্বল ইতিহাস সংস্কৃতি বিসর্জন দিচ্ছি! তখন আমরা কি একটুও ভেবেছি, আসলে আমরা কোথায় যাচ্ছি? কোথায় যাচ্ছে এদেশের ভবিষ্যত?

সূত্র :

মতামত দিন

Solve : *
1 × 30 =